ক্রেগলিস্টে নতুন ও কাজে ইচ্ছুকদের জন্য সম্পূর্ণ বাংলায় ক্রেগলিস্ট টিউটোরিয়াল

আমরা অনেকেই অনেক দিন ধরে ক্রেগলিস্টে কাজ করছি অথবা অনেকেই নতুন করে শুরু করতে চাইছি । আমার জানা মতে বাংলায় তেমন কোন টিউটোরিয়াল নেই তাই আমি নতুন হিসেবে নতুনদের জন্য সামান্য কিছু তথ্য সকলের সামনে উপস্থাপন করলাম । আসুন জেনে নেই আমাদের কি কেন এবং কিভাবে কাজ করতে হবে 🙂



আমাদের কাজের জন্য যা যা প্রয়োজন হবেঃ-

১.একাধিক ওয়েব ব্রাউজার একসাথে একাধিক মেইল ওপেন রাখার জন্য । তবে সর্বনিম্ন ২ টি ব্রাউজার হলেও কাজ করা যাবে। আপনি ( Mozila FireFox, Google Chrome, SeaMonkey, CometBird, Flock) ব্যবহার করতে পারেন।
২. জিমেইল অ্যাকাউন্ট (ইউএসএ এর নাম ভিত্তিক) ।
৩. জিমেইল অ্যাকাউন্ট ফোন ভেরিফাই করার জন্য ইউএসএ এর ফোন নম্বর ।
w4m ও জব পোস্ট উভয় কাজের জন্য মেইল তৈরি হয়ে গেলে মেইলটিকে অবশ্যই মাদার মেইল এ ফরওয়ার্ড করে দিতে হবে ।
মনে রাখতে হবে জব পোস্ট করার ক্ষেত্রে প্রতিটি মেইল কাজ শুরু করার আগে আমরা যে সিটিতে কাজ করবো তার আইপি দিয়ে তৈরি করতে হবে এবং w4m এ পোস্ট করার ক্ষেত্রে আগে থেকে মেইল তৈরি করে রাখা যেতে পারে তবে জবের জন্য মেইল পুরুষের নাম দিয়ে তৈরি করা ভালো এবং w4m এর জন্য অবশ্যই মেয়েদের নামে করতে হবে।

প্রথম ধাপঃ

আমরা যে সিটিতে কাজ করবো সেই সিটির প্রক্সি আইপি সক্স থেকে চালু করে নিতে হবে এবং চালু হয়ে গেলে নিশ্চিত হবার জন্য ওয়েব ব্রাউজারে টাইপ করতে হবে What is my ip ?
এরপর মেইল তৈরির জন্য আমেরিকান পুরুষ/ মহিলা এর নাম বাছাই করে নিতে হবে ।
বাছাই করা নাম দিয়ে মেইল তৈরি করতে হবে সেক্ষেত্রে ফোন নম্বরের স্থানে ইউ এস এর ফোন নম্বর ব্যবহার করতে হবে ।

দ্বিতীয় ধাপঃ ( মাদার মেইল ফরওয়ার্ড)

আপনার তৈরি মেইলটিকে মাদার মেইলে ফরওয়ার্ড করে দিতে হবে । এর জন্য আপনাকে দুই ব্রাউজারে দুটি মেইল ওপেন করতে হবে । একটিতে আপানর সদ্য তৈরি করা মেইল এবং অন্যটিতে মাদার মেইল ।

তৃতীয় ধাপঃ (সক্স ওপেন এবং প্রক্সি চালুর নিয়ম)

এবার দেখা যাক কিভাবে আপনি ইউএসএ আইপি ব্যবহার করার জন্য সক্স চালু করবেন
১. প্রথমে আপনাকে আপনার সক্সের জিপ ফাইলটি আনজিপ করে নিতে হবে।
২. এবার আনজিপ হলে সেটিকে শর্টকাট করে ডেস্কটপে নিতে হবে কেননা এটি পোর্টেবল । এর জন্য সবুজ চিহ্নিত Socks escort আইকন এর উপর মাউস এর রাইট বাটন ক্লিক করে Send To > Desktop (create shortcut icon) এ ক্লিক করুন। ।
৩. এবার ডেস্কটপে সক্সের আইকনটিতে ক্লিক করতে হবে। লগইন আইডি পাসওয়ার্ড দিয়ে প্রবেশ করুন। প্রবেশের পর বিভিন্ন দেশের নাম থেকে United States এ ক্লিক করুন।
এবার নিচে ইউএসএ এর বিভন্ন State দেখতে পাবেন এবং সেই State কয়টা প্রক্সি আছে সেটি দেখতে পারবেন। এবার আপনি যে State এ পোস্টিং করতে চান সেই State এ ক্লিক করুন। এরপর আপনি ঐ State এর সকল সিটি এর আইপি দেখতে পাবেন, এবার আপনি যে আইপি তে কাজ করতে চান সেই আইপিতে রাইট বাটন ক্লিক করে চালু Obtain To > Default profile এ ক্লিক করতে হবে।
এবার আমরা সক্স এর নিচের দিকে দেখতে পাব একটি সবুজ লাইট অন হয়ে গেছে, তার মানে সক্সটি এখন কাজ করার জন্য প্রস্তুত।
যদি একটি ভালো মানের আইপিতে কাজ করতে চান তাহলে আপনাকে দেখতে হবে যে সেই আইপি এর পিং রেট 100ms থেকে 150ms এর মধ্যে আছে কিনা এবং ঐ একই আইপি এর Uptime 03:00:00 থেকে 10:00:00 আছে কিনা। এইসকল রেঞ্জ এর মধ্যে থাকা আইপি গুলোর স্পীড বেশি হয় এবং লাইভ হবার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

চতুর্থ ধাপঃ (পোস্ট করা ও পোস্ট লাইভ নিশ্চিত হওয়া)

এতক্ষণ আমরা যা করেছি সেটি ক্রেগলিস্টে কাজ করার জন্য সেটআপ সমূহ দেখানো হয়েছে, এবার আমরা যা করবো সেটা হল প্রধান বিষয়। এখন এই ধাপে আমরা দেখব কিভাবে জব সেকশন এ পোস্ট করবেন এবং লাইভ হয়েছে তা বুঝবেন । তো চলুন শুরু করা যাকঃ
১ . ১ম,২য় ও ৩য় ধাপ ওকে করার পর আমাদের বায়ারের দেয়া পোস্ট লিস্ট এক্সেল ফাইলটি ওপেন করতে হবে
২. এখানে জব পোস্টের জন্য যে লিঙ্ক গুল দেয়া আছে সেখান থেকে যে সিটিতে পোস্ট করবেন সেটির জব সেকশন এর পোস্ট লিংক কপি করে ব্রাউজারে ওপেন করে নিন।
৩. এবার আমরা একটা ফর্ম ফেজ পাব যেখানে আমাদের পোস্ট এর টাইটেল , লোকেশন ,ইমেইল ( কাজের শুরুতে আমরা যে মেইল টি তৈরি করেছি সেটি) পোস্টের বর্ণনা , Compenstion এ কত পে করা হবে তা ও জব কি ধরনের হবে এসব ফিল্ড গুলো পূরণ করুন।
৪. এবার পেজের নিচে দিকে Continue এ ক্লিক করুন । এর পর পরবর্তী পেজ আসবে এবং এখানে ও Continue বাটন এ ক্লিক করুন।
৫. এখন একটি কনফার্মেশন লিঙ্ক আপনার নতুন মেইল এ যাবে। সেখান থেকে কনফার্মেশন লিংক এ ক্লিক করুন।
৬. এবার Terms & Condition এর পেজ আসবে। এবার নিচে Agree তে ক্লিক করুন।
পরবর্তী যে পেজ আসবে তার মাধ্যমে আমরা বুঝতে পারবো আমাদের পোস্ট লাইভ হয়েছে কি না ।
যদি ফোন নম্বর চায় তাহলে বুঝতে হবে লাইভ হয়নি ।
একই ভাবে আবার পুনরায় ওই জব লিঙ্ক ওপেন করে নতুন করে পোস্ট করুন ।এভাবে প্রতিটি মেইল ও প্রক্সি দিয়ে আপনি একটি সিটিতে ১৫ টি পর্যন্ত পোস্ট করতে পারেন।
যদি আপনার ৩ টি লাইভ হয় তাহলে এর পোস্ট করা যাবে না প্রতিটি পোস্টে ভিন্ন ধরনের জব পোস্ট করুন এবং প্রতিদিন একই সিটিতে পোস্ট না দেওয়াই ভালো ।

বোনাসঃ

এখানে ক্রেগলিস্টে ব্যবহারিত কিছু শব্দের সংজ্ঞা দেয়ার চেস্টা করবো এবং বেশ কিছু টিপস উল্লেখ করবো যার মাধ্যমে আপনি সহজেই পোস্ট লাইভ করতে পারবেন।

সক্সঃ

যে সফটওয়ার এর মাধ্যমে আপনি আপনার কম্পিউটার এর প্রক্সি পরিবর্তনের সাথে সাথে আইপি চেঞ্জ করতে পারেন।

লাইভঃ

লাইভ মানে হল আপনি যে পোস্ট করেছেন সেটি একটিভ অবস্থায় থাকা। পোস্টিং এর সময় যেসকল পোস্ট গুলো ক্রেগলিস্ট এপ্রুভ করে ফোন ভেরিফিকেশন ছাড়াই সেগুলোই হল লাইভ। এক্ষেত্রে আপনার যত বেশি লাইভ হবে আপনার লিড এর পরিমান তত বেশি হবে।

লিডঃ

আপনার লাইভকৃত পোস্ট এ যদি কেউ রিপ্লে দেয় তাহলে সেই রিপ্লে প্রথমে আপনার মাদার মেইল এ আসবে এবং সেখান থেকে তা ফরওয়ার্ড হয়ে আপনার কাউন্ট মেইল এ আসবে। তার মানে হচ্ছে যে প্রতিটি রিপ্লেই মানে হল এক একটি লিড, এ ধরনের ১০০০ টি রিপ্লেকে আমরা 1K বলে থাকি।

(flag) ফ্ল্যাগঃ

Flag মানে হল আপনার লাইভকৃত পোষ্টকে ডিলিট করে দেয়া। যখন ক্রেগলিস্ট এর মোডারেটর দেখে যে আপনার পোস্টিং এ স্প্যামিং হয়েছে বা পোস্টিং উপযুক্ত নয় তখন তারা সেই লাইভকে ডিলিট করে দেয়, আর এটাই হল ফ্ল্যাগ।

মাদার মেইলঃ

মাদার মেইল হল সেই ইমেল যে ইমেইল এ আপনার সকল প্রয়োজনীয় মেইল যেমন লিংক কনফার্মেশন, লিড, লাইভ এর মেইল গুলো আসবে সেটি।

কাউন্ট মেইলঃ

এই ইমেইল এ ফিল্টারিং এর মাধ্যমে শুধু মাত্র আপনার লিড গুলো আসবে। এবং আপনি এখান থেকেই বুঝতে পারবেন যে আপনার মোট কতটি লিড এসেছে।

কিছু প্রয়োজনীয় কথাঃ

১. ধৈর্য্য ধারন করে কাজ করতে থাকুন, যতক্ষণ পর্যন্ত লাইভ না হয় ততোক্ষণ ধৈর্য্য সহকারে পোস্ট করতে থাকুন। কারন ধৈর্য্য ছাড়া ক্রেগলিস্ট এ কাজ করে সফল হওয়া যায় না।
২. নিজে নিজে অ্যাড লিখে পোস্ট করার চেষ্টা করুন। এবং আকর্ষণীয় টাইটেল দিতে পোস্ট করুন। সেক্ষেত্রে লিড পাওয়ার সম্ভবনা খুবই বেশি থাকে।
৩. আপনার ইমেইল , লাইভ সহ সকল তথ্য নিয়মিত সংরক্ষণ করুন।
৪. প্রতিদিনের বায়ারের টার্গেট পূরণ করার চেষ্টা করুন।
৫. একই সিটিতে ৩ বার এর বেশি লাইভ করানো থেকে বিরত থাকুন।
৬. W4M এর লাইভ এর জন্য সবচেয়ে ভালো সময় বাংলাদেশের জন্য ভোর ০৫টা থেকে সকাল ১০ টা এবং সন্ধ্যা ০৫ টা থেকে রাত ১০টা। তাই চেষ্টা করুন এই সময়ের মধ্যে পোস্টিং করা ও লাইভ করানোর জন্য। তাহলে আপনি সবচেয়ে বেশি লিড পেতে পারেন। আর জব পোস্টিং এর জন্য সারা দিন রাতই লাইভ হয়।
৭. W4M এর লিড বেশি হয় এবং একসাথে অনেক লিড পাওয়া যায়,কিন্তু W4M এর ফ্ল্যাগ বেশি হয়। অন্যদিকে জব এ লিড ধীরে ধীরে আসতে থাকে কিন্তু ফ্ল্যাগ কম হয়।
৮. সক্স ব্যবহারে মিতব্যায়ি হোন । অযথা বার বার আইপি চেঞ্জ করবেন না। এতে করে আপনার জন্য বরাদ্দকৃত আইপি এর পরিমান কমে যেতে পারে, তাছাড়া ক্রেগলিস্ট বাদে ঐ আইপি দিয়ে অন্যকাজ করবেন না।
৯. সক্সে যদি কোন সমস্যা হয় তাহলে লগ আউট করে পুনরায় লগইন করুন। তাতেও যদি না হয় তাহলে পিসি রিস্টার্ট দিন।
১০ সক্স চালানর জন্য উইন্ডোজ সেভেন ব্যবহার করুন, আর যারা এক্সপি ব্যবহার করেন তারা .Net 3.0 ইন্সটল করে নিন। অন্যথায় সক্স কাজ করবে না।
যারা সম্পূর্ণ নতুন তাদের কাজ করার ক্ষেত্রে কিছুটা সমস্যা হতে পারে তবে সেক্ষেত্রে অন্যদের কাছ থেকে কিছুটা সাহায্য নিলে আশা করি কোন সমস্যা হবে না । আমাদের টিউটোরিয়ালটি মনোযোগ সহকারে পড়ার জন্যা ধন্যবাদ।
সবাই ভালো থাকবেন! সুস্থ থাকবেন। ধন্যবাদ আমাদের সাথে থাকুন নতুন নতুন জিনিস শিখুন
Previous
Next Post »